fbpx

‘অ্যালিস’ ইন ওয়ান্ডার ল্যান্ডের রুপকথার মতোই জিতলো লিভারপুল!

Pinterest LinkedIn Tumblr +

নব্বই মিনিট শেষ। যোগ করা অতিরিক্ত চার মিনিটও শেষ হতে বাকি কয়েক সেকেন্ড। কর্নার পেলো লিভারপুল। প্রিমিয়ার লিগ থেকে রেলিগেটেড হয়ে যাওয়া ওয়েস্ট ব্রমের সাথে এক এক গোলের ড্র যখন মেনে নিচ্ছিল লিভারপুল সমর্থকরা, যখন আগামী চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার শেষ আশাটাও প্রায় নি:শেষ, যখন ম্যাচের শেষ বাঁশি শোনার অপেক্ষায় ওয়েস্ট ব্রম ডাগআউট, তখনই দেখা গেলো গোলবার ছেড়ে দৌড়ে ওয়েস্ট ব্রমের ডিবক্সে এসে গেছেন অল রেড গোলি অ্যালিসন বেকার। ট্রেন্ট আলেকজান্ডার আরনল্ডের নেয়া কর্নার কিক হাওয়ায় ভাসলো, বলটা এসো পরলো অ্যালিসনের কাছাকাছি, বিদ্যূৎগতিতে মাথা দিয়ে “ফ্লিক” করলেন ব্রাজিলিয়ান গোলকিপার, বল জায়গা পেলো ওয়েস্ট ব্রমের জালে।

অবিশ্বাস্য ওই মূহুর্তকে যেন লিভারপুলের খেলোয়াড়রাই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। লিভারপুল ইতিহাসেরই প্রথম গোলকিপার হিসেবে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে গোল করার বিরল কৃতিত্বে দলকে দুই এক গোলের জয় দিয়েছেন অ্যালিসন বেকার। ৩৬ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে এখোনো টেবিলের পাঁচে থাকা লিভারপুল যদি লিগের শেষ দুই ম্যাচ জেতে, জায়গা হয়ে যাবে আগামী চ্যাম্পিয়ন্স লিগে।

ম্যাচের প্রথমার্ধে সাড়ে দিন বছর পর রবসন কানুর গোলে পিছিয়ে পরেছিলো লিভারপুল। অল রেড শিবিরকে সমতায় ফেরান মোহাম্মেদ সালাহ, ৩৩ মিনিটে। লিগে ২২তম গোলে এখন যৌথভাবে হ্যারি কেইনের সাথে টপ স্কোরার মো. সালাহ। প্রথমার্ধেই লিড ডাবল করতে পারতো লিভারপুল। কিন্তু পেনাল্টি স্পটের কাছাকাছি জায়গা থেকেও পোস্টে বল মারেন ওয়েস্ট ব্রমের বিপক্ষে ইয়ুর্গেন ক্লপের দলকে নেতৃত্ব দেয়া রবের্তো ফিরমিনো।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রায় পুরোটাই খেলা হয়েছে ওয়েস্ট ব্রমের হাফে। ৭৭ ভাগ বলের দখল, ৬৮৮টি পাস, ১২টি কর্নার কিংবা গোলবারে ২৫টি শট; কোন কিছুই কাজে দিচ্ছিলো না, গোলটাই পাচ্ছিলো না ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। “আনলাকি” ১৩তম কর্নারটাই শেষ পর্যন্ত হয়ে রইলো লিভারপুলের “লাকি ব্রেক”, ওই কর্নারেই যে গোল করে ইতিহাসের পাতায় নাম তুলেছেন অ্যালিসন বেকার। যেটাকে অনায়াসেই “অ্যালিস” ইন ওয়ান্ডার ল্যান্ডের রুপকথার সাথে তুলনা করা য়ায়!!

Share.

Leave A Reply