fbpx

এবার টুইটারও ট্র্যাকিংয়ের জন্য অনুমতি চাইছে  

Pinterest LinkedIn Tumblr +

অ্যাপলের আইওএস ১৪.৫ নতুন এক শর্ত জুড়ে দিয়েছে। যেখানে ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে সোশ্যাল মিডিয়াগুলোকে বিজ্ঞাপন ট্র্যাকিংয়ের জন্য অনুমতি নিতে হবে বলে জানানো হয়েছে। ফলে বিষয়টি ভালোভাবে মেনে নিতে পারেনি ফেসবুক।

ফেসবুকের মতো টুইটারও ব্যবহারকারীদের কাছে ট্র্যাকিংয়ের জন্য অনুমতি চাইছে। তবে তারা ফেসবুকের মতো আক্রমণাত্মক কিছু করেনি। বিনীতভাবেই তারা এ অনুমতি চেয়েছে।

সংবাদমাধ্যম ম্যাকরিউমারের প্রতিবেদন বলছে, টুইটারের আইওএস অ্যাপ ৮.৬৫–এ আপডেটের পরপরই ব্যবহারকারীদের কাছে পপ-আপ নোটিফিকেশনের মাধ্যমে অনুমতি চাওয়া হচ্ছে। ‘বিজ্ঞাপনকে সংশ্লিষ্ট রাখার’ জন্য অনুমতিটি প্রয়োজন বলেও জানাচ্ছে টুইটার।

সেখানে আরও বলা হয়েছে, ‘আপনার জন্য সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞাপন দেখতে টুইটারকে এ ডিভাইসে অন্য প্রতিষ্ঠানের ডেটা ট্র্যাক করতে দিন, যেমন আপনি যে অ্যাপ ব্যবহার করেন এবং ওয়েবসাইট ভিজিট করেন।‘

তখন ব্যবহারকারীকে কন্টিনিউ ট্যাপ করতে হবে। সেখানে ট্যাপ করলেই ব্যবহারকারীদেরকে মূল অ্যাপ ট্র্যাকিং স্বচ্ছ্বতা সেটিংসে নিয়ে আসছে টুইটার। পাশাপাশি এই অনুমতি কেনো চাওয়া হচ্ছে সেই বিষয়কে সমর্থন করে পোস্ট এবং সেখানে বর্তমান অ্যাপ গোপনতা নীতি নিয়ে একটি লিংক দিয়ে দিচ্ছে টুইটার।

এই ট্র্যাকিংয়ের অর্থ হচ্ছে আপনি কোথায় যাচ্ছেন, কোন সাইট ভিজিট করছেন, কী কেনাকাটা করছেন, অনলাইনে আপনার পছন্দ-অপছন্দ কী, সব এখন তারা ট্র্যাক করবে।

অন্যদিকে ফেসবুক ও ইনস্ট্রাগ্রাম জোরসোর ক্যাম্পেইন করে বিজ্ঞাপনী ট্র্যাকিংয়ের জন্য অনুমতি চাইছে। অনুমতি না পেলে ভবিষ্যতে সেবার জন্য অর্থ নেওয়া হতে পারে বলেও জানিয়েছে তারা।

আইফোনের নতুন এই আপডেট পাওয়ার পর অ্যাপ ট্র্যাকিংয়ের পরিস্থিতিও বদলে গেছে।

মোবাইল অ্যাপ বিশ্লেষক ফ্লারি অ্যানালেটিক্স বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে দৈনন্দিন আইওএস ব্যবহারকারীর মাত্র পাঁচ শতাংশ অন্য অ্যাপকে ট্র্যাক করার অনুমতি দিয়েছে।

Share.

Leave A Reply