fbpx

‘টিকা না নিয়ে চলাচল শাস্তিযোগ্য অপরাধ’ বক্তব্য প্রত্যাহার করলেন মন্ত্রী

Pinterest LinkedIn Tumblr +

আগামী ১১ আগস্ট থেকে করোনো ভ্যাকসিন নেওয়া ছাড়া ১৮ বছরের ঊর্ধ্বের কোনো ব্যক্তি বাইরে চলাফেরার ক্ষেত্রে শাস্তির মুখে পড়বেন বলে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, তা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

আজ বুধবার (৪ আগস্ট) মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সকল নাগরিককেই পর্যায়ক্রমে ভ্যাক্সিনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। তবে ‘টিকা নেওয়া ছাড়া ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে কেউ ১১ আগস্টের পর ঘর থেকে বাইরে বের হতে পারবেন না’ এ মর্মে বিভিন্ন গণমাধ্যমে মন্ত্রীর যে বক্তব্য প্রচার করা হচ্ছে, বক্তব্যের সে অংশটুকু প্রত্যাহার করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

মোজাম্মেল হক এ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘সিদ্ধান্তটি প্রত্যাহার করা হয়েছে। বক্তব্যটি সংশোধন করা হয়েছে। এটা তো একেবারে সম্ভব নয়, পর্যায়ক্রমে হবে। ওই পর্যায়ে আমরা ভবিষ্যতে যাব। আরও টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করে এই সিদ্ধান্ত আমরা নেব। আমরা আরও সময় নেব।’

এর আগে, আজ দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, ‘টিকা নেওয়া ছাড়া ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে কেউ বাইরে বের হতে পারবে না’ বলে যে সংবাদটি প্রচারিত হচ্ছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত বা প্রস্তাবনা দেওয়া হয়নি’।

জাহিদ মালেকের এই বক্তব্যের পরই মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সুফি আব্দুল্লাহিল মারুফের পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহার করে নেওয়ার বিষয়টি জানানো হয়।

এর আগে, গতকাল মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। সভাশেষে ‘টিকা ছাড়া বাইরে বের হলে শাস্তি’ -এ সিদ্ধান্তের বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান তিনি।

Share.

Leave A Reply