fbpx

সাকিবকে ছাড়াই জিতলো মোহামেডান: জিতেছে শেখ জামাল

Pinterest LinkedIn Tumblr +
বিকেএসপিতে বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে সাকিব বিহীন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব পাঁচ রানে হারিয়েছে ওল্ড ডিওএইচএসকে। অন্য ম্যাচে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জকে ৭ উইকেটে হারায় শেখ জামাল ধানমন্ডি।
বিকেএসপি চার নম্বর মাঠে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মোহামেডান ওপেনার আব্দুল মজিদ ও পারভেজ হোসেন ইমন শুরুটা বেশ ভালোই করেন। দলীয় ৩৬ রানে ইমন ফিরে যাওয়ার কিছুক্ষন পরই ব্যাক্তিগত ২৯ রানে ফিরে যায় মজিদ। এরপরই মোহামেডানের ত্রাতা হয়ে ইরফর শুক্কুর করেন ৪২ বলে ৬৮ রান। মোহামেডানের আর কোন ব্যাটসম্যান এরপর বিশের বেশি রান করতে না পারলে ১৫৪ রানেই শেষ হয় মোহামেডানের ইনিংস।
জবাবে ব্যাট করতে নামা ওল্ড ডিওএইচএসও শুরুটা বেশ ভালোই করে। দলীয় ৪৭ রানে ওপেনার আনিসুল ইসলাম ইমন রান আউটের শিকার হলে ব্যাকফুটে চলে যায় ওল্ড ডিওএইচএস। দারুণ ফর্মে থাকা মাহমুদুল হাসান জয়ের ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান। দলীয় ১০০রানের আগেই তিন উইকেট হারানো ওল্ড ডিওএইচএসের ম্যাচ জিততে বাঁধা হয়ে দাড়ায় বৃষ্টি। বৃষ্টির পর ওল্ড ডিওএইচএসের টার্গেট দাড়ায় ১৬ ওভারে ১২১। শেষ পর্যন্ত টার্গেট তাড়া করতে ব্যর্থ হলে ৫ রানের জয় পায় মোহামেডান। বল হাতে সাকিবের বদলে নেতৃত্ব দেওয়া শুভাগত হোম নেন ২ উইকেট। এ জয়ে আট ম্যাচে ৫ জয় নিয়ে টেবিলের চারে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব।
বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে দিনের প্রথম খেলায় টস হেরে আগে ব্যাট করা লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের দুই ওপেনার পিনাক ঘোষ ও জাকের আলী শুরুতে রানের খাতা সচল রাখলেও বেশিক্ষণ সেটা ধরে রাখতে পারেনি। দলীয় ৫১ রানে দুই ওপেনারের আউট হলে রূপগঞ্জের ব্যাটিংয়ের হাল ধরেন সাব্বির রহমান। ৩১ বলে ৪১ রান আসে সাব্বিরের উইলো থেকে। এরপর অধিনায়ক নাইম ইসলামের অপরাজিত ১৯ বলে ৪১ রানের ইনিংস লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জকে এনে দেয় ১৩৭ রানের লড়াই করার মতো পুজিঁ।
১৩৮ রানের লক্ষে ব্যাট করতে নামা শেখ জামাল ওপেনার সৈকত আলীর ৩০ বলে ৪৩ ও উইকেট কিপার নুরুল হাসান সোহানের ৪৪ রানের ক্যামিও ইনিংস শেখ জামালকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যায়। এরপর বৃষ্টি বাধায় দুই ওভার কমিয়ে টার্গেট ১২৭ রান করলে শেষ বলেই জয়ের সমিকরন মেলায় শেখ জামাল। বল হাতে দুই উইকেট ও ব্যাটিংয়ে ৪৩ রান করা সৈকত আলীর হাতেই ওঠে ম্যাচ সেরার পুরস্কার।
Share.

Leave A Reply