fbpx

সুমিতের ঢালিউড সফর

Pinterest LinkedIn Tumblr +

বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে চলছে রাশিদ পলাশ পরিচালিত সিনেমা ‘পদ্মাপূরাণ’। নির্মাতা বরাবরই বলছেন, এটি খাঁটি বাংলা সিনেমা। পদ্মাপাড়ের মানুষের জীবনের গল্প উঠে এসেছে এই সিনেমায়।

সিনেমার একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেতা সুমিত সেনগুপ্ত। মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা সুমিত একটু একটু করে এগোচ্ছেন নিজের কাঙ্খিত লক্ষ্যের দিকে। এই ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকতে হলে কতটা সংগ্রামের ভেতর দিয়ে যেতে হয়, সেই কথাই বারবার উঠে এসেছে তার মুখে।

‘পদ্মাপূরাণ’ দেখে সবাই ভালো বলছে সেটা আপ্লুত করে এই অভিনেতাকে। রংপুর থেকে ঢাকা শহরের এই সফরটা  নিশ্চয়ই এত সহজ ছিল না তার জন্য। কিন্তু হাল ছাড়লে হবে না, শক্ত করে ইন্ডাস্ট্রির মাটি কামড়ে পড়ে থাকতেই হবে।

‘পদ্মাপূরাণ’ নিয়ে খুবই উচ্ছ্বসিত এই অভিনেতা। সেই উচ্ছ্বাস তার চোখে মুখে খেলে যায়, ‘আমি বলছি না এটা সেরা সিনেমা, কিন্তু আমরা যে শুরুটা করলাম, এটা অনেক বড় একটা ব্যাপার।’

সামনে মুক্তি পেতে যাচ্ছে এই অভিনেতার ‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমাটি। প্রায় পরপর দুটি সিনেমার মুক্তি, মানসিকভাবে চাপ অনুভব করছেন কিনা জানতে চাইলে সুমিত বলেন, একটু তো প্রেসার আছেই। তবে আমি এই সিনেমার জন্যও অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। ‘পদ্মাপূরাণ’ এক ধরনের সিনেমা, অন্যদিকে ‘মিশন এক্সট্রিম’ আরেক ধরনের।’

‘মিশন এক্সট্রিম’ ছাড়াও ‘সুমিত অভিনীত ‘দামাল’ সিনেমাটি আছে মুক্তির অপেক্ষায়।

মোবাইল অপারেটর রবি’র একটি বিজ্ঞাপন দিয়ে মিডিয়ায় সুমিতের যাত্রা শুরু হয়। মুক্তি পাওয়া তার প্রথম সিনেমা ‘সেদিন বৃষ্টি ছিল’। তবে ‘মহুয়া সুন্দরী’ সিনেমায় অভিনয় করে তিনি সকলের দৃষ্টি কেড়েছিলেন।

Share.

Leave A Reply