fbpx

হাতিয়ায় ইউপি সদস্যকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা

Pinterest LinkedIn Tumblr +

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চরঈশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রবীন্দ্র চন্দ্র দাসকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

গতকাল বুধবার (৯ জুন) দিবাগত রাত দুইটার দিকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম আজাদের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র থেকে জানা যায়, শ্রমিকলীগের সভাপতি আল আমিনকে সাথে নিয়ে রবীন্দ্র চন্দ্র মোটরসাইকেলে করে নিজের বাসায় যাচ্ছিলেন। পথের মধ্যেই তাদেরকে লক্ষ্য করে দুর্বৃত্তরা কয়েক রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে তাদের গতিপথ রোধ করে। এ সময় পেছনে বসা আল আমিন পালিয়ে গেলেও রবীন্দ্রকে দুর্বৃত্তরা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে এবং হাতের কব্জি ও রগ কেটে তাকে ফেলে রেখে যায়। সেখান থেকে পরে একদল টহল পুলিশ রবীন্দ্রের লাশ উদ্ধার করে।

৪৮ বছর বয়সী রবীন্দ্র চন্দ্রকে দলীয় কোন্দল ও পূর্ববিরোধের জেরে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি তার স্বজনদের।

এদিকে, রবীন্দ্রের সাথে মোটরসাইকেলে থাকা শ্রমিকলীগের সভাপতি আল আমিন অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম আজাদের বাড়ির সামনে তারা যেতেই চেয়ারম্যানের ভাতিজা সোহেল, ছেলে অমি, রহিম ডাকাত ও নাজিমসহ কয়েকজন তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি করে। তারাই গুলি ও এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রবীন্দ্রকে হত্যা করে বলে জানান তিনি।

তবে, নিজের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে চেয়ারম্যান আজাদ বলেন, তিনি বর্তমানে পরিবারসহ ঢাকায় রয়েছেন। এ হত্যাকাণ্ডের সাথে তিনি বা তার পরিবারের কেউ যুক্ত নয় বলে দাবি তার। তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এ হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে নোয়াখালীর হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Share.

Leave A Reply